অভিযোগ দেওয়ার মতো বিষয় পরিলক্ষিত হচ্ছে না : মেয়র প্রার্থী তাপস 

News News

Desk

প্রকাশিত: ৪:২৬ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক : জাতীয় পার্টির (জাপা) মনোনীত মেয়র প্রার্থী প্রকৌশলী ইকবাল হোসেন তাপস বলেছেন, এখন পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠের যে অবস্থা তাতে কোনো অভিযোগ দেওয়ার মতো বিষয় পরিলক্ষিত হচ্ছে না।

তিনি বলেন, তবে মেয়র প্রার্থীদের সবাই আমার প্রতিদ্বন্দ্বী বলে আমি মনে করি।

যে যার মতো করে ভোট চাইবে এটাই স্বাভাবিক। তবে ধর্মের দোহাই দিয়ে ধোঁকা দিয়ে মানুষের ভোট নিবে, এটা সাধারণ মানুষ গ্রহণ করবে বলে আমি মনে করি না।

সোমবার (২৮ মে) সকালে বরিশাল নগরের কাউনিয়া থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও ভোটারদের সঙ্গে আলাপকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রকৌশলী ইকবাল হোসেন তাপস বলেন, নারীদের যোগ্য সম্মান তারা পাচ্ছে না। একজন নারী সপ্তাহে সাত দিন, বছরে ৩৬৫ দিন ঘরে ও বাইরে সমান তালে কাজ করেন। কর্মস্থলে থাকা নারীদের সুযোগ-সুবিধা কিছুটা থাকলেও আমাদের মতো নয়, আবার ঘরে থাকা নারী বিশেষ করে মায়েদের কোনো বেতন, প্রমোশন ও ছুটি নেই।

এসব নারীদের সম্মান দেওয়ার জন্য আমার চেষ্টা থাকবে। অন্তত তাদের সু-চিকিৎসা এবং তাদের বাচ্চাদের সু-চিকিৎসা নিশ্চিত করতে চাই। এলক্ষ্যে তাদের জন্য নারী স্পেশালাইজড হসপিটাল করতে চাই, যেখানে কোনো পুরুষ থাকবে না।

হাতপাখার প্রার্থীকে উদ্দেশ্য করে ইকবাল হোসেন তাপস বলেন, ধর্ম ধর্মের জায়গায়, রাজনীতি রাজনীতির জায়গায়, ওনারা ধর্ম এবং রাজনীতি এক জায়গায় করে ফেলেছে। তিনি ওয়াজ মাহফিল করেন। হাজার হাজার, লাখ লাখ মানুষ সেই ওয়াজ মাহফিল শুনতে যায়, তার অর্থ এই নয় ওনাদের তারা ভোট দেবে।

তিনি বলেন, যুবকরা দৌড় দিয়ে হেরে গেলো আর বয়স্ক মানুষ দৌড়ে জিতে গেলো এটাও বরিশালের মানুষ বিশ্বাস করবে না।

ইকবাল হোসেন তাপস বলেন, বরিশাল সিটি করপোরেশনের বর্ধিত এলাকাগুলোতে একেবারেই উন্নয়নের ছোয়া থেকে বঞ্চিত, বিজয়ী হতে পারলে বর্ধিত এলাকাগুলোর উন্নয়নের চিন্তা প্রথমেই আমার রয়েছে।

এছাড়া নগরের জলাবদ্ধতা নিরসন, বেকার সমস্যার সমাধান, আইটি সেক্টরের উন্নয়ন ও এ সেক্টরে তরুণদের কর্মসংস্থার সৃষ্টি করার লক্ষ্যে কাজ করার বিষয়গুলো অগ্রাধিকার তালিকায় থাকবে।

তিনি বলেন, নগরবাসীর ওপর করের বোঝা কমাতে হবে, আর করের বোঝা কমাতে হলে সিটি করপোরেশনকে উৎপাদনমুখী করতে হবে। কারণ সিটি করপোরেশনকে আয় করতে হবে, আয় না থাকলে এখনকার মতো সিটি করপোরেশনের পরিচয় বিল খেলাপি হিসেবেই থাকবে।

সূত্র : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম