কমিটিতে বড় পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই : সেতুমন্ত্রী

News News

Desk

প্রকাশিত: ৩:৩৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২২, ২০২২

অনলাইন ডেস্ক : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বর্তমান সময় যে বিশ্ব সংকট চলছে, এই টাইমে আমাদের সম্মেলন হবে চ্যালেঞ্জিং। বৃহস্পতিবার (২২ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলনের মাঠ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পরিদর্শন আগে তিনি এ কথা বলেন।

দলের সাধারণ সম্পাদক পদে পরিবর্তন আসতে পারে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার জানা মতে দলে সেক্রেটারি হওয়ার মতে ১০ জন অভিজ্ঞ নেতা আছেন। কে হবেন সেটা নেত্রীর ইচ্ছা এবং কাউন্সিলরদের মতামত। সবকিছুর প্রতিফলন ঘটবে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে।

তিনি আরও বলেন, এই সম্মেলনে যে কমিটি হবে এখানে তেমন একটা পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা কম। নির্বাচনের পর আগামও সম্মেলন হতে পারে। তখন একটা মেজর হিসেব হতে পারে। আপাতত বড় কোনো ধরণের পরিবর্তনের ব্যাপারে ভাবছি না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণ করেছি। এখন আমাদের লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলা। ৪১পর্যন্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে কাজ করবে আওয়ামী লীগ। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন,মুক্তিযু্দ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ। সেই লক্ষ্য আমরা কাজ করে যাবো। আমাদের মূল লক্ষ্য উন্নত, সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ হয়েছে, এখন আমাদের লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ। ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়া আমাদের লক্ষ্য। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাবো।

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন চ্যালেঞ্জিং সময়ে পড়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা সংকটে আছি। সংকটকে সম্ভাবনায় রূপ দিতে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ সুসংগঠিত উপস্থিতির মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষ্যে আমরা ঐক্যবদ্ধ আছি।

তিনি বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে সুসংগঠিত, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ গড়ে তুলতে চাই। আগামী সরকার পরিচালনার জন্য আমরা প্রস্তুত।

কাদের বলেন, সভাপতি আমাদের অপরিহার্য। যিনি (শেখ হাসিনা) সভাপতি তিনি আমাদের ঐক্যের প্রতীক। এই মতের ভিন্ন একজনও কাউন্সিলর খুঁজে পাওয়া যাবে না। এ নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই।
তিনি আরও বলেন, এবারের সম্মেলন ঐতিহাসিক সম্মেলন হবে। সারাদেশে জাগরণের ঢেউ আছে। সম্মেলনে নেতা-কর্মীদের ঢল নামবে।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, কার্যনির্বাহী সদস্য এবিএম রিয়াজুল কবির কাওছার, সৈয়দ আব্দুল আউয়াল শামীম, আজিজুস সামাদ আজাদ ডন, অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন